স্ত্রীকে তালাক দিতে রাজি না হওয়ায় স্বামী শিকলবন্দি!

সিরাজগঞ্জের তাড়াশে স্ত্রীকে তালাক দিতে রাজি না হওয়ায় মিল্টন হোসেন নামের এক যুবককে শিকলে বেঁধে রাখার অভিযোগ উঠেছে। গত বৃহস্পতিবার রাতে তাড়াশ পৌর এলাকার রঘুনিলী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।শিকলবন্দি মিল্টন হোসেন ওই গ্রামের ইসমাইল হোসেনের ছেলে। আর তার স্ত্রী রাবেয়া খাতুন বগুড়ার গাবতলী উপজেলার ধুলিরচর গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের মেয়ে।গতকাল শুক্রবার রাবেয়া খাতুনের অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা যায়, বাড়ির বারান্দায় লোহার শিকলে মিল্টনকে বেঁধে রাখা হয়েছে। তার দুই হাত, দুই পা ও কোমরে শিকল দিয়ে বাঁধা। পৃথক তিনটি শিকলে ঝুলছে বড় বড় তিনটি তালা।এ ব্যাপারে জানতে চাইলে শিকলবন্দি মিল্টন বলেন, ‘বৃহস্পতিবার রাতে মা-বাবা ও বোন মিলে আমাকে নির্যাতনের পর বেঁধে রেখেছেন। স্ত্রীকে তালাক দিতে মা-বাবা প্রায়ই চাপ দিচ্ছিলেন। কিন্তু তাতে রাজি না হওয়ায় সবাই মিলে আমাকে এভাবে নির্যাতন চালায়।’তবে মিল্টনের বাবা ইসমাইল হোসেন বলেন, ‘আমার ছেলে মাদকাসক্ত। তাই তার নির্যাতন ঠেকাতে বেঁধে রাখা হয়েছে।’ছেলের তালাকের বিষয়ে জানতে চাইলে ইসমাইল হোসেন বলেন, মিল্টন স্ত্রীকে একবার তালাক দিয়ে আবারও বিয়ে করায় তাদের মধ্যে বনিবনা নেই।

তাদের দাবি, খাতুন-ই-আল (পাকিস্তানের ফার্স্ট লেডি)-এর মধ্যে আরবীয় মুসলিম পুরাণে কথিত দ্বৈত সত্ত্বা রয়েছে। তার আচরণে এমন কিছু দেখা যায়, যা আর পাঁচজন সাধারণের মধ্যে নেই।এই খবর চাউর হতেই পাকিস্তানের অনেক সংবাদমাধ্যম ঘটনার আরও গভীরে যাওয়ার চেষ্টা করে। একটি পাক টিভি চ্যানেলের দাবি, প্রথম প্রথম নাকি অনেক কর্মচারী বুশরাকে ভয় পেতেন। বেশ কয়েকজন এসব দেখে ভয় পেয়ে চাকরি ছেড়েও চলে গেছেন।উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রী হওয়ার ছয় মাস আগেই রেহাম খানের সঙ্গে ডিভোর্স সেরে বুশরাকে বিয়ে করেন ইমরান খান। বিয়ের পর থেকে সংবাদমাধ্যমকে এড়িয়েই চলেন তিনি। প্রকাশ্যে বার হন কম। বের হলেও আপাদমস্তক বোরখায় ঢাকা। এ নিয়েও কম সমালোচনা হয়নি। কিন্তু এবার নতুন খবর, ইমরানের স্ত্রীর মধ্যে অলৌকিক ক্ষমতা রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

shares