মুক্তি পেয়েছেন জম্মুর গৃহবন্দি কিছু নেতা

আসন্ন স্থানীয় নির্বাচন ব্লক ডেভেলপমেন্ট কাউন্সিলকে (বিডিসি) সামনে ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মুর গৃহবন্দি রাজনৈতিক নেতাদের মুক্তি দিয়েছে সেখানকার প্রশাসন। বুধবার জম্মুর গৃহবন্দি নেতাদের ওপর থেকে সকল ধরনের বিধিনিষেধ তুলে নেয় বিজেপি সরকার। তবে কাশ্মিরের নেতারা এখনো গৃহবন্দি রয়েছেন। খবর জি নিউজ।মোদি সরকারের হাত থেকে মুক্তি পাওয়া নেতারা হলেন- ন্যাশনাল কনফারেন্সের দেবেন্দর সিং রানা, কংগ্রেসের রমান ভাল্লা, জম্মু-কাশ্মির ন্যাশনাল প্যান্থারস পার্টির হর্ষদেব সিং প্রমুখ। তবে সাবেক দুই মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আবদুল্লাহ ও মেহবুবা মুফতিকে মুক্তি দেয়া হয়েছে কি না তা জানা যায়নি।জানা যায়,

আগামী ২৪ অক্টোবর জম্মু-কাশ্মিরের ৩১৬ টি ব্লকের মধ্যে ৩১০টি ব্লকে বিডিসি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। তাই আসন্ন স্থানীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে গৃহবন্দি রাজনৈতিক নেতাদের মুক্তি দিয়েছে সেখানকার প্রশাসন। এর আগে সকল রাজনৈতিক দল যাতে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে পারে তাই গৃহবন্দি নেতাদের মুক্তি দাবি করে জামায়াতে ইসলামি হিন্দ।উল্লেখ্য, গত ৫ আগস্ট ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মিরের বিশেষ সুবিধা ৩৭০ ধারা সংবিধান থেকে বাতিল করে বিজেপি সরকার। পাশাপাশি জম্মু-কাশ্মির ও লাদাখকে আলাদা আলাদা দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবেও ঘোষণা করা হয়। সেখানকার বাসিন্দারা যেনো এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ না করতে পারে তাই অঞ্চলটিতে আগের দিনই ইতিহাসের কঠোরতম নিরাপত্তা পরিস্থিতি জারি করে মোদি সরকার। এর আগে এ ঘোষণাকে কেন্দ্র করে সেখানকার সাবেক দুই মুখ্যমন্ত্রীসহ বেশকিছু রাজনৈতিক নেতাদের গৃহবন্দি করে প্রশাসন।পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, নাগরিকত্ব শনাক্ত করতে রোহিঙ্গাদের যে আবেদনপত্র পূরণ করতে দেয়া হয়েছিল, সেখানে ভুল থাকার বিষয়টি স্বীকার করেছে মিয়ানমার। ইতোমধ্যে যারা শনাক্ত হয়েছেন তাদের যত দ্রুত সম্ভব ফিরিয়ে নেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে মিয়ানমার।মন্ত্রী আরো বলেন, আজকের এই রোহিঙ্গা সংকট মিয়ানমারেরই তৈরি। সুতরাং এর সমাধান তাদেরই করতে হবে। এ বিষয়ে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে প্রায় সকল দেশ তাদের মত দিয়েছে।জাতিসংঘ অধিবেশনের সময় ত্রিপাক্ষিক আলোচনা হয়েছে উল্লেখ করে আবদুল মোমেন বলেন, জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনের সাইড লাইনে বাংলাদেশ, চীন ও মিয়ানমারের সঙ্গে ত্রিপক্ষীয় বৈঠক হয়েছে। সেখানে রোহিঙ্গা ইস্যুতে শক্তিশালী আলোচনা হয়েছে। রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে যৌথ কমিশন গঠন করা হবে। তাদের নাগরিকদের অবশ্যই ফিরিয়ে নেবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

shares