মিয়ানমারের কাছে ৫০ হাজার রোহিঙ্গার নতুন তালিকা হস্তান্তর : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রচেষ্টা ত্বরান্বিত করতে মিয়ানমারের কাছে প্রায় ৫০ হাজার রোহিঙ্গার একটি নতুন তালিকা হস্তান্তর করা হয়েছে বলে মঙ্গলবার জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন। খবর ইউএনবি’র।পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে কয়েকজন সাংবাদিকের সাথে আলাপকালে তিনি এ তথ্য জানান।রোহিঙ্গাদের নিজ ভূমি রাখাইন রাজ্যে প্রত্যাবাসনের আগে যাচাইয়ের জন্য বাংলাদেশ গত ২৯ জুলাই মিয়ানমারের কাছে ২৫ হাজার রোহিঙ্গার একটি নতুন তালিকা দেয়।

বাংলাদেশ এখন পর্যন্ত প্রায় ৫৫ হাজার রোহিঙ্গার নাম মিয়ানমার কর্তৃপক্ষের কাছে তুলে দিয়েছে।আবরার হত্যা নিয়ে মন্ত্রী বলেন, এ বিষয়ে কূটনীতিকদের বিবৃতি দেয়া ‘অহেতুক’। কারণ সরকার এ বিষয়ে তাৎক্ষণিকভাবে কঠোর ব্যবস্থা নিয়েছে।‘আমি মনে করি এটা বন্ধ হওয়া উচিৎ,’ জানিয়ে মন্ত্রী উল্লেখ করেন যে সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রে গুলিতে চারজন মারা যাওয়ার পর মার্কিন সরকার কাউকে ধরতে পারেনি। ‘আমি মনে করি তারা (কূটনীতিকরা) শিষ্টাচার লঙ্ঘন করেছেন।’

উপকূলে নজরদারি ব্যবস্থা স্থাপন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘এতে অন্য কারও মাথা ব্যাথা হওয়া উচিত নয়।’বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যার বিষয়ে জাতিসংঘ বিবৃতি দেয়ায় রবিবার বাংলাদেশ অসন্তোষ প্রকাশ করে। এ ঘটনাটিকে সরকার বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ বিষয় হিসেবে দেখছে।
ঢাকায় নিযুক্ত জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়ক মিয়া সেপ্পোকে রবিবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক (জাতিসংঘ উইং) নাহিদা সোবহানের কার্যালয়ে তলব করা হয় এবং সেখানে আবরার হত্যার বিষয়ে সরকারের অবস্থান এবং ঘটনার পরই নেয়া ‘তড়িৎ ব্যবস্থা’ সম্পর্কে ব্যাখ্যা দেয়া হয় বলে কূটনৈতিক সূত্র জানিয়েছে।

বৃহস্পতিবার তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেন, আবরার হত্যা মামলা নিয়ে ঢাকায় নিযুক্ত বিদেশি কূটনীতিকদের বিবৃতি দেয়া অযাচিত।
আবরার হত্যার পর জাতিসংঘ এক বিবৃতিতে বলেছিল, ‘নিজের মতামত স্বাধীনভাবে প্রকাশের দায়ে’ এক তরুণ বুয়েট শিক্ষার্থীর খুন হওয়ার ঘটনায় তারা শোকাহত।বুয়েটের ইলেকট্রিকাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে (২১) ৬ অক্টোবর রাতে শের-ই-বাংলা হলের ২০১১ নম্বর কক্ষে নিয়ে পিটিয়ে হত্যা করেন ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতা-কর্মী।

এ ঘটনায় আবরারের বাবা বরকতউল্লাহ ১৯ জনকে অভিযুক্ত করে ৭ অক্টোবর সন্ধ্যায় চকবাজার থানায় মামলা করেন। পুলিশ মামলার এজাহারভুক্ত ১৬ আসামিসহ এ পর্যন্ত ২০ জনকে গ্রেপ্তার করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

shares