ভারতীয় তরুণী সিয়ানি হলেন আয়েশা

ভারতীয় তরুণী সিয়ানি বেনি ইসলাম গ্রহণ করেছেন। এর পর নিজের নাম রেখেছেন আয়েশা। ভারতের কেরালা রাজ্যের ওই তরুণী প্রেমের টানে আবুধাবিতে ছুটে গিয়ে ইসলাম গ্রহণের পর বিয়ে করেন।কিন্তু বিষয়টি বাবা-মা না জেনে পুলিশের কাছে গিয়ে নিখোঁজের অভিযোগ করেন। কেরালার কোঝিকোড় পুলিশকে তারা জানান, তাদের ১৯ বছরের মেয়েকে অপহরণ করা হয়েছে। এবং আবুধাবিতে কোনো সন্ত্রাসবাদী সংগঠন জোর করে তাদের দলে ভিড়তে বাধ্য করেছে। এ নিয়ে গত কয়েক দিন ধরেই কেরালার সংবাদমাধ্যমে প্রতিবেদন প্রকাশ হয়েছে।কিন্তু খ্রিস্টান তরুণী সিয়ানি রোববার গালফ নিউজকে জানান, কেউ জোর করেনি।

তিনি স্বেচ্ছায় ভালবাসার ডাকে সাড়া দিয়ে আবুধাবি গেছেন এবং ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন।তিনি স্পষ্ট বলেছেন, “আমি ভারতের একজন প্রাপ্তবয়স্ক নাগরিক। আমার যেখানে ইচ্ছা যেতে পারি। আমি যা করেছি স্বেচ্ছায় করেছি। ভালবাসার টানে করেছি। এর মধ্যে জোর জবরদস্তির ছিটেফোঁটাও নেই।”খবরে বলা হয়েছে, দিল্লির জেসাস অ্যান্ড মেরি কলেজের স্নাতকের ছাত্রী তিনি। গত ১৮ সেপ্টেম্বরের পর আর তিনি কলেজে যাননি। ওই দিন বিকেলের বিমানেই আবুধাবি উড়ে যান। ভারতীয় বংশোদ্ভূত এক ব্যবসায়ীর সঙ্গে নয় মাস আগেই বিয়ে সেরেছিলেন ওই তরুণী। তার পর ২৪ সেপ্টেম্বর আবুধাবির আদালতে তিনি ইসলাম গ্রহণ করেন।আলোচিত ছবি ‘মাসুদ রানা’র নায়িকা চরিত্রে বলিউড তারকা শ্রদ্ধা কাপুরের নাম শোনা গিয়েছিল। এ নিয়ে আনুষ্ঠানিক বিবৃতিও দিয়েছিলেন ছবিটির প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়া। তবে তাদের সে বিবৃতি মিথ্যা প্রমাণিত হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

shares