কাশ্মিরের মর্যাদা হরণের পর খুলছে বিশ্বের সর্বোচ্চ যুদ্ধক্ষেত্র

সর্বসাধারণের জন্য খুলে দেওয়া হচ্ছে বিশ্বের বৃহত্তম যুদ্ধক্ষেত্র সিয়াচেন গ্লেসিয়ার। ভারতীয় সেনাবাহিনী এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে দেশটির গণমাধ্যমে বলা হয়েছে। জম্মু ও কাশ্মির রাজ্যের মর্যাদা বাতিলের পর সেটিকে দুই ভাগ করে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ভাগ করার পরই এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে।স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, প্রতিকূল আবহাওয়ার সঙ্গে ভারতীয় সেনা যেভাবে যুদ্ধ করে করে চলেছে, দৈনন্দিন জীবনের ওঠা-পরার সঙ্গে সাধারণ মানুষকে পরিচিত করে তোলার জন্যই এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ভারতীয় সেনাপ্রধান বিপিন রাওয়াত জানিয়েছেন সাধারণ মানুষ সেনাবাহিনীর জীবনযাত্রার বিষয় জানতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। তাই এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।এ প্রসঙ্গে এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ‘সম্প্রতি বিপিন রাওয়াত একটি সেমিনারে জানিয়েছেন, ভারতীয় সেনা প্রশিক্ষণ কেন্দ্রগুলিতে সাধারণ মানুষকে আসতে অনুমতি দিয়েছেন, তবে এবার ভাবনা আছে, অন্যান্য পোস্টগুলি,

আরও বেশি উচ্চতার শৃঙ্গগুলি যেমন সিয়াচেন গ্লেসিয়ারকে সাধারণের জন্য খুলে দেওয়া হবে।’ভারতীয় সেনাবাহিনী সাধারণ যারা কাজ করেন তাদের ছাড়া কোন মানুষকেই সিয়াচেন গ্লেসিয়ারে আসার অনুমতি এখনও দেয় না। ভাবা হচ্ছে যে, লাদাখের উচ্চ শৃঙ্গ যেগুলি বেশি কার্যকর সেই স্থানগুলিকেই সকলের জন্য খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারতীয় সেনাবাহিনী। সেখানে সাধারণ মানুষ আসবেন এবং সেনাদের কাজ চোখের সামনে থেকে দেখতে পারবেন।সিয়াচেন গ্লেসিয়ার লাদাখের একটি অংশ যা চলতি বছরের আগস্ট মাসেই জম্মু ও কাশ্মির থেকে আলাদা হয়ে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল বলে ঘোষণা করেছে নরেন্দ্র মোদি সরকার। তবে এখনও পর্যটকদের নির্দিষ্ট কোনো জায়গা বা কোনো প্রক্রিয়ার মধ্যে দিয়ে নিয়ে যাওয়া হবে তা এখনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি।খবরে বলা হয়েছে, সিইয়াচেন গ্লেসিয়ার পৃথিবীর সর্বোচ্চ যুদ্ধক্ষেত্র। যা দেখাশোনার দায়িত্বে রয়েছে ভারতীয় সেনাবাহিনী। বিশালাকার গ্লেসিয়ার এবং চরম ঠাণ্ডা পরিস্থিতি এখানে ভারতীয় সেনাবাহিনীর সবচেয়ে বড় শত্রু।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

shares